দেবী দুর্গার বিভিন্ন বাহনে আগমন

30

আমরা জানি দেবী দুর্গার বাহনটির নাম সিংহ। কিন্তু নবরাত্রির সময় দেবী দুর্গা মর্তে আসার জন্য এবং কৈলাসে ফেরার জন্য ভিন্ন বাহন ব্যবহার করেন। এই সময়ে দেবী দুর্গার বাহন হয় গজ, ঘোড়া, দোলা, এবং নৌকা।দেবী ভাগবত পুরাণ মর্তে নেমে আসার জন্য যে বাহনের ব্যবহার করেন ও ফিরে যাওয়ার জন্য যে বাহন ব্যবহার করেন তার বিচার করেই পৃথিবীর ভবিষ্যৎ কেমন হতে চলেছে তা বোঝা যায়।আসন্ন দূর্গাপূজায় দেবী দুর্গার আগমন গজে, যার অর্থ শস্যপূর্ণা বসুন্ধরা এবং উমা কৈলাসে ফিরবেন নৌকায় যার অর্থ শস্য বৃদ্ধি ও জল বৃদ্ধি।দেবীর আগমন ও ফিরে যাওয়া কোন ক্ষেত্রে কোন বাহনে হয় এবং তার অর্থ কি আসুন জেনে নেয়া যাক|দেবীর আগমন কোন বারে হচ্ছে এবং দেবী কোন বারে ফিরে যাচ্ছে তার উপর নির্ভর করে বাহন নির্ধারিত হয়|রবি অথবা সোমবার দেবীর আগমন হওয়ার অর্থ হল উমা এবার গজের পিঠে চেপে আসবেন। গজ সবসময়ই শুভ। এর অর্থ হল শস্য ফলবে অফুরন্ত। পৃথিবীতে মানুষের খাদ্যের আকাল হবে না। আবার গজে ফিরে যাওয়ার অর্থ হল সারা বছরই মায়ের আশীর্বাদ পাবে জীবকুল। ভালোবাসা এবং আনন্দে পূর্ণ থাকবে জীবন।শনি ও মঙ্গল বার দেবীর আগমনের অর্থ হল তিনি আসবেন ঘোড়ায় চেপে। ঘোটকে আসা খুব একটা শুভ নয়। এর অর্থ হল বিপদ ও ধ্বংস বাড়বে। এই ঘোড়া রাজায় রাজায় যুদ্ধ হওয়ার প্রতীক। অর্থাৎ বিভিন্ন দেশের যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ার ইঙ্গিত দেয় ঘোড়া। রাজনৈতিক ক্ষেত্র ও সামাজিক ক্ষেত্রে অস্থিরতার ইঙ্গিত দেবীর ঘোড়ায় আগমন এবং গমন|বৃহঃস্পতিবার ও শুক্রবার দেবীর আগমন হলে পালকিতে আগমন হয়, দেবীর পালকিতে যাত্রা অশুভ ইঙ্গিত দেয়। এর অর্থ অত্যন্ত খারাপ দিন অপেক্ষা করে আছে পৃথিবীবাসীর জন্য। খরা, মহামারী অপেক্ষা করে আছে আগামী দিনে। দোলা বহন করেন চারজন মানুষ। এর অর্থ হল মানুষ একজোট না থাকলে খারাপ সময় পেরনো অসম্ভব হবে।বুধবার দেবী দুর্গার আগমন অথবা গমন হলে নৌকায় যাত্রা করেন দেবী, নৌকা যাত্রা হলে তা ইচ্ছা পূরণের ইঙ্গিত দেয়। এর অর্থ হল পৃথিবীতে শস্যের কোনও অভাব হবে না।তবে একইসঙ্গে বন্যা হওয়ারও ইশারা করে এই বাহন। ফসল ভাল হলেও অতিবৃষ্টি এবং বন্যাতেও ভুগতে হতে পার. মানুষকে।পরের পর্বে দেবী দূর্গা সংক্রান্ত আরো অনেক পৌরাণিক তথ্য ও আধ্যাত্মিক ব্যাখ্যা নিয়ে ফিরে আসবো|পড়তে থাকুন|ভালো থাকুন|ধন্যবাদ|