দেবী দুর্গার অস্ত্র – দ্বিতীয় পর্ব

28

বিগত পর্বে দেবী দুর্গার হাতে শোভিত পাঁচটি অস্ত্র নিয়ে লিখেছিলাম আজ বাকি পাঁচটি অস্ত্র নিয়ে লিখবো|তীর-ধনুক:দেবী দুর্গার হাতে তীর-ধনুক থাকে। পবনদেব এই অস্ত্র প্রদান করেন।লক্ষ্যভেদ বা স্থির লক্ষ্য আর একাগ্রতা প্রতীক হলো তীর-ধনুক। যুদ্ধে জয় পেতে বা লক্ষ্য স্থির রাখতে তীর-ধনুক অস্ত্র হিসেবে দেবীর হাতে সজ্জিত থাকে।ঘণ্টা : দেবরাজ ইন্দ্র ঘণ্টা অস্ত্রটি দেবীকে প্রদান করেন। ঘন্টাধ্বনি অশুভ শক্তিকে দুর্বল করে। শ্রী শ্রী চণ্ডীতে বর্ণিত আছে দেবী মহিষাসুরকে যুদ্ধে আহ্বান করার সময় সতর্কবার্তা স্বরূপ দেবী অট্টহাসি হাসেন এবং শাঁখ ও ঘণ্টার ধ্বনিতে তাদের যুদ্ধের প্রস্তুতির নির্দেশ দেন।ঘণ্টারধ্বনিতে যুদ্ধের সূচনা হয়।শব্দ এমন তরঙ্গ যার প্রভাব সুদূরপ্রসারী। সেই সুদূরপ্রসারী শব্দ তরঙ্গ বার্তা বাহক হিসেবেও কাজ করে।সনাতন ধর্মে পুজোর সময় এই কারনেই ঘন্টা বাজানোর রীতি সৃষ্টি হয়েছে|বজ্র: দেবীর হাতে থাকে বজ্র।ঘন্টা সহ দেবরাজ ইন্দ্র দেবী দুর্গাকে বজ্র প্রদান করেন।বজ্র দৃঢ়তা এবং সংহতির প্রতীক। আমাদের যাপিত বা ব্যবহারিক জীবনে ও চরিত্রে কঠোরতা প্রয়োজন। সংহতি পূর্ণ সমাজ জীবন সব মানুষের কাম্য। তাই দেবীর হাতে বজ্র শোভা পাচ্ছে।বজ্র দিয়ে দেবী অসুরিক শক্তির উপরে আঘাত হানেন|সর্প : দেবীর হাতে শোভিত সর্প বা নাগপাশ বিশুদ্ধ চেতনার প্রতীক।দেবি দূর্গাকে নাগরাজ দেন সর্প বা নাগপাশ। আসুরিক প্রবৃত্তি লাঘব এবং মনে বিশুদ্ধ চেতনার বিকাশে দেবী দুর্গার হাতে সর্প বা নাগপাশ শোভা পায়|নাগ দৃঢ়তা ও চতুরতার প্রতীক রূপেও পরিচিত|ত্রিশূল: দেবী দুর্গার অন্যতম প্রধান অস্ত্র ত্রিশূল|শিবকথা ও দেবতাদের অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে বলার সময়ে আলাদা করে ত্রিশূল নিয়ে বলেছি তবু আজ সংক্ষেপে বলি|মহাদেব দেবী দুর্গাকে প্রদান করেন ত্রিশূল |ত্রিশূল হলো ত্রিগুণের প্রতীক। এই ত্রিগুণ হলো সত্ত্ব, রজঃ, তমঃ। সত্ত্ব গুণ হলো দেবগুণ। অর্থাৎ, এই গুণ নিরহংকার, ত্যাগ ও উচ্চ অলৌকিকত্বের প্রকাশ। এই গুণের অধিকারী দেবতারা। রজঃ গুণ হলো মনুষ্যকুল বা জীবের গুণ। শোক, লোভ, মায়া, দুঃখ, মোহ, কাম সবই রজঃ গুণ। এই গুণ জীবকুলের মায়া স্বরূপ।তমঃ গুণ হলো রাক্ষস বা ঋণাত্মক শক্তির প্রকাশ।ত্রিশূল যার হাতে তিনি ত্রিগুনের শাসন কর্তা তার স্মরণ নিলে ত্রিগুণ থেকে মুক্তি লাভ ঘটে|তাই দেবী দূর্গা ত্রিশূল ধারিণী|আগামী পর্বে দেবী দূর্গা সংক্রান্ত আরো অনেক পৌরাণিক তথ্য ও আধ্যাত্মিক ব্যাখ্যা নিয়ে ফিরে আসবো|পড়তে থাকুন|ভালো থাকুন|ধন্যবাদ|