পন্ডিতজির আসাম যাত্রা

118

যেমন টা আগেই বলেছিলাম আজ থাকবো আসামে, চলে এসেছি, আজ কাল দুদিনই থাকবো, আজ শিলচর ও কাল গৌহাটি, যদিও বেড়ানোর টাইম খুব একটা হবেনা কারন বহু মানুষ আমার অপেক্ষায় আছে, তাদের সমস্যা সমাধানেই কেটে যাবে বেশিটা সময়|তবে আসাম যাত্রা আমার এই প্রথম নয়, বহুবার এসেছি এবং প্রতিবারই আসামের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য,ঐতিহাসিক স্থান গুলি এবং মন্দির গুলি আমায় মুগ্ধ করেছে|আজ সেই ভ্রমনের অভিজ্ঞতা ও সুখস্মৃতি আপনাদের সাথে ভাগ করেনিই, সাথে কিছু তথ্য|

এক সময় আসামের নাম ‘কামরূপ’ ছিল। আরও প্রচীনকালে কামরূপ ছিল ‘প্রাগজ্যোতিষ’ নামে পরিচিত| আসামে বহু প্রাচীন ক অনেক মন্দির আছে। এর মধ্যে কামাখ্যা ও ঊমানন্দা মন্দির দুটি বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। এছাড়া শহরের কেন্দ্রস্থলে ১০ম শতকে নির্মিত জনার্দন মন্দির দাঁড়িয়ে আছে কালের সাক্ষী হয়ে।

আসামে এলে ঘুরে দেখতে ভুলবেননা আসাম স্টেট মিউজিয়াম। গুয়াহাটি শহরে এই জাদুঘর অবস্থিত। স্বাধীনতার আগে ১৯৪০ সালে জাদুঘরটি প্রতিষ্ঠা করা হয় ।পরবর্তীতে ১৯৫৩ সালে জাদুঘরটি আসাম রাজ্য সরকার নিয়ন্ত্রণে নেন। এটি ভারতের অন্যতম বৃহৎ সংগ্রহশালা। এখানে প্রচীন কালের পাথরের মূর্তি, কাঠ, ধাতু এবং টেরাকোটার নানা নিদর্শন, লিপি, কারুশিল্প, লোকশিল্প, নানা ধরনের অস্ত্রসহ আসামের ইতিহাস-ঐতিহ্য, ও শিল্প-সংস্কৃতির নানা নিদর্শন রয়েছে।

আসাম স্টেট মিউজিয়ামের পাশেই যুদ্ধ স্মারক উদ্যান। বিশাল একটি দিঘিকে ঘিরেই মূলত এ স্মারক সম্ভার। দিঘির সম্মুখভাগেই আছে যুদ্ধ-স্মারক বিমান ও ট্যাংক। এছাড়া আছে কিছু ভাস্কর্য।

তন্ত্র ও জ্যোতিষ জগতের মানুষ হিসেবে কামাখ্যা মন্দির আমার জীবনের সাথে গভীর ভাবে জড়িয়ে রয়েছে, বহুবার এসেছি, কখনো ঘুরতে, কখনো কাজে, জানিয়ে রাখি হিন্দু দেবী কামাখ্যার এই মন্দির আসামের রাজধানী গুয়াহাটি শহরের পশ্চিমে নীলাচল পর্বতে অবস্থিত। এটি ৫১ সতীপীঠের অন্যতম। মন্দির চত্বরে দশমহাবিদ্যার মন্দির আছে।

আসামে এতো কিছু দেখা সত্ত্বেও কাজিরাঙা ন্যাশনাল পার্ক না ঘুরলে আসাম ভ্রমণ অসম্পূর্ণ থেকে যায়|আসামের গোলাঘাট এবং নাগাওন জেলায় অবস্থিত। এই বন একশৃঙ্গী গণ্ডারের জন্য বিশেষভাবে পরিচিত। এছাড়া এ বন বিশ্ব ঐতিহ্য হিসেবেও স্বীকৃত। আসাম একশৃঙ্গের গণ্ডারের জন্য বন্যপ্রাণী বা প্রকৃতিপ্রেমীর কাছে বেশি পরিচিত। ফলে রাজ্যটি বন্যপ্রাণী পর্যটনের ক্ষেত্রে ক্রমেই গুরুত্বপূর্ণ অঞ্চল হয়ে উঠছে। এছাড়া আসামের চা বিশেষ বিখ্যাত।তবে আমার মতে সব থেকে বিখ্যাত ও গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো আসামের মানুষের আতিথেয়তা ও তাদের সারল্য|

আপাতত সেই বিখ্যাত চায়ে চুমুক দিয়ে ব্যাস্ত হয়ে যাবো ক্লাইন্ট দেখায়, তবে কালও থাকছি, সময় সুযোগ হলে আবার আসাম নিয়ে দুচার কথা বলবো আপনাদের জন্যে|জানাবেন আপনাদের মতামত|পড়তে থাকুন|ভালো থাকুন|ধন্যবাদ