বাংলার কালী – পাতাল কালী

234

সামনেই কৌশিকী অমাবস্যা|তন্ত্র ও শক্তি সাধনার শ্রেষ্ঠ সময়|জ্যোতিষ শাস্ত্রেও বড়ো ভূমিকা আছে এই বিশেষ অমাবস্যা তিথির|এই সময়ে কালী কথা বলবো সেটাই স্বাভাবিক|আজ বাংলার যে রহস্যময় কালী মন্দির নিয়ে লিখবো তা এপার বাংলায় নয় ওপার বাংলায় অবস্থিত|চট্টগ্রামের কাছে, সীতাকুন্ড নামক স্থানে অবস্থিত এই পাতাল কালী মন্দির|চন্দ্রনাথ পাহাড় অঞ্চলে অবস্থিত এই পাতাল কালী মন্দির যাকে গঠন শৈলীর জন্যে অনেকেই উল্টা কালী ও বলেন|শুধু পাতাল কালী নয় এই অঞ্চলে রয়েছে শিব লিঙ্গ এবং হনুমানমন্দির|কথিত আছে নেপালের এক রাজা স্বপ্নে আদিষ্ট হয়ে পৃথিবীর পাঁচ কোণে পাঁচটি শিবমন্দির নির্মাণ করেন। এর মধ্যে চন্দ্রনাথ পাহাড়ের শিবমন্দির অন্যতম|মনে করা হয় মহাভারতের সময়ে এখানে মহামুনি ভার্গব বসবাস করতেন|রামচন্দ্র তার বনবাসের সময় এখানে এসেছিলেন। তারা আসবেন জানতে পেরে মহামুনি ভার্গব এখানে স্নানের জন্য তিনটি কুণ্ড সৃষ্টি করেন। এরপর রামচন্দ্রের স্ত্রী সীতা এই কুণ্ডে স্নান করেন। এরপর থেকেই স্থানের নামকরণ করা হয় সীতাকুণ্ড|চন্দ্রনাথ পাহাড়ের এক খাদে শীলা খন্ডে প্রকট হয়েছেন মা কালীর যা পাতাল কালী বা উল্টা কালী নামে জগৎ বিখ্যাত|স্থানটি অতি দুর্গম ও রহস্যময়|কথিত আছে সত্য যুগে এখানে স্থাপিত হয় পাতাল কালী|শাস্ত্র অনুসারে এই স্থানে মা কালীর নির্দেশে হনুমান পাতাল রাজ মহিরাবনে কে হত্যা করেন|আজও বিপদ কে উপেক্ষা করে প্রাকৃতিক প্রতিকূলতাকে জয় করে বহু মানুষ আসেন পাতাল কালীর দর্শন করতে|পুজো করতে|আগামী পর্বে অন্য কোনো মন্দির রহস্য বা বাংলার কালী মন্দিরের কথা নিয়ে ফিরে আসবো|কৌশিকী অমাবস্যা উপলক্ষে জ্যোতিষপরামর্শ বা গ্রহ দোষ খণ্ডনের জন্যে নির্দ্বিধায় সরাসরিযোগাযোগ করুন|ভালো থাকুন|ধন্যবাদ|