ঝুলন যাত্রার আধ্যাত্মিক তাৎপর্য

655

আজ ঝুলন পূর্ণিমা বা ঝুলন যাত্রা উৎসব|ভারতের সনাতন সংস্কৃতির অংশ হিসেবে আমাদের জীবন ও দর্শনের সাথে ওতপ্রোত ভাবে জড়িয়ে আছে অসংখ্য ধর্মীয় উৎসব ঝুলন যাত্রা এই উৎসব গুলির মধ্যে অন্যতম|এই ঝুলন উৎসব বা ঝুলন পূর্ণিমা হল শ্রীকৃষ্ণেরঅনুগামীদের অর্থাৎ বৈষ্ণবদের একটি গুরুত্বপূর্ণ উৎসব|দোল ও জন্মাষ্টমীর পর ঝুলন তাদের কাছে অতি পবিত্র একটি অনুষ্ঠান|অমাবস্যায় পরের একাদশী থেকে আরম্ভ করে শ্রাবনী পূর্ণিমা পর্যন্ত চলে এই উৎসব|এই দিন দোলনা সাজানো, ভক্তিমূলক গান,কীর্তন, বিশেষ পূজা ও প্রসাদ বিতরনের মাধ্যমে রাধাকৃষ্ণের ঝুলন লীলাকে উদযাপন করেন সারা দেশের সনাতন ধর্মাবলম্বী মানুষ|মনে করা হয় বৃন্দাবনে রাধা-কৃষ্ণর প্রেমলীলাকে কেন্দ্র করে দ্বাপরযুগে এই ঝুলন উৎসবের সূচনা হয়েছিল এবং সেই তিথি ও উৎসব আজও পালিত হয়ে আসছে সমান উৎসাহের সাথে|ঝুলন যাত্রা এমনই এক লীলা যেখানে শ্রীকৃষ্ণের সঙ্গে শ্রীরাধার মাধুর্যপূর্ণ প্রেমের পরিপূর্ণ প্রকাশ ঘটেছে|আসলে এখানে রাধা ও কৃষ্ণ ভক্ত ও ভগবানের চিরন্তন সম্পর্কের প্রতীক|সূর্যাস্ত ও সূর্যোদয়ের সাথে তাল মিলিয়ে ঝুলন পূর্ব থেকে পশ্চিম দিকে দোলে|শুধু তাই নয় সূর্য হচ্ছে পৃথিবীতে সর্ব প্রকার শক্তির উৎস। আর পৃথিবীর গতি হচ্ছে-দু’টো, আহ্নিকগতি ও বার্ষিক গতি। দুই গতিধারায় বছরে দু-বার কর্কটক্রান্তি ও মকরক্রান্তি রেখায় গিয়ে অবস্থান করে। তখন ঘটে সূর্যের উত্তরায়ন ও দক্ষিণায়ন অবস্থান। সেই কারণেই শ্রীকৃষ্ণের দোলযাত্রা অনুষ্ঠানে দোলনাটিকে ঝোলানো হয় উত্তর থেকে দক্ষিণ দিকে|মায়াপুর, বৃন্দাবন সহ দেশের বহু জায়গায় ঝুলন উৎসবকে মহা সমারোহে নিষ্ঠা সহকারে পালন করা হয়, এক কালে বাংলার ঘরে ঘরে ঝুলন সাজানোর চল ছিলো|এখনও হয় কোথাও কোথাও|সব মিলিয়ে এ এক অসাধারন সুন্দর ও তাৎপর্যপুর্ন উৎসব|প্রতিটি উৎসবই কোনো না কোনো কারনে বিশেষ তাৎপর্য পূর্ণ|আর এই সকল উৎসব গুলি পালিত হয় তিথি নক্ষত্র ধরে বিশেষ বিশেষ সময়ে|মানুষের জীবনেও এই বিশেষ তিথি নক্ষত্রর গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব রয়েছে যা আমাদের প্রাচীন জ্যোতিষ শাস্ত্রে সুন্দর ভাবে ব্যাখ্যা করা হয়েছে|সামনেই জন্মাষ্টমী এবং তারপর কৌশিকী অমাবস্যা|যারা পূজা পাঠ হোম যজ্ঞর মাধ্যমে গ্রহ দোষ খণ্ডন করে প্রতিকার চান তারা এই তিথি গুলি কাজে লাগাতে পারেন কিভাবে তা বলে দেয়ার জন্য আমি আছি আর আছে হৃদয়েশ্বরী মা সর্বমঙ্গলা মায়ের মন্দির|এই সময় কে কাজে লাগিয়ে জ্যোতিষ সংক্রান্ত সমস্যা যারা দুর করাতে চান তারা আমার সাথে যোগাযোগ করতে পারেন উল্লেখিত নাম্বারে|ঝুলন পূর্ণিমার শুভেচ্ছা সবাইকে|ভালো থাকুন |ধন্যবাদ|