শিবানী পীঠ

347

আজ কলকাতার কাছেই বারুইপুরে অবস্থিত একটি সুন্দর এবং প্রসিদ্ধ কালী মন্দিরের কথা আপনাদের বলবো|আজকের পর্বে শিবানী পিঠ কালী মন্দির|

দক্ষিণ ২৪ পরগণার বারুইপুরে অবস্থিত শিবানী পীঠ মন্দিরটি সাধারণ মানুষের কাছে অতি পরিচিত। ভারী সুন্দর এই মন্দিরের পরিবেশটা ।ভট্টাচার্য্য পরিবারের এই মন্দিরটি স্থাপিত হয়েছিল ১৯৬৬ সালের কালিপূজার দিন|

শিবানী পীঠ প্রতিষ্ঠা করেছিলেন শ্রী দূর্গাদাস ভট্টাচার্য্য মহাশয়।শিবানী পীঠ হল দেবী শিবানীর মন্দির।দেবী শিবানী মা কালিরই একটি অংশ।খুবই জাগ্রত মন্দির বলে প্রচুর ভক্ত এখানে আসেন তাদের মনষ্কামনা পূরণের উদ্দেশ্যে।বিশেষ বিশেষ দিনে খুবই ভীড় হয় এখানে।শণি,মঙ্গলবার ও অমাবশ্যার দিনে এখানে প্রচুর ভক্ত সমাগম ঘটে

মন্দিরের ভেতরে প্রতিষ্ঠাতা শ্রী দুর্গাদাস ভট্টাচার্যর বেশ কয়েকটি মূর্তি বর্তমান। এখানে নাট মন্দিরের ভেতরে অনেক মুণি ঋষিদের মূর্তি বর্তমান।নাটমন্দিরে বসে একমনে মায়ের দিকে তাকিয়ে থাকলে মনে প্রশস্তি পাওয়া যায়।

সুপ্রাচীন ইতিহাস বা অলৌকিক ঘটনাবলীর উল্লেখ সেই ভাবে না থাকলেও এই শিবানী পীঠ স্থানীয় মানুষের কাছে এক বিশ্বাস ও ভরসার স্থান|আপনারাও চাইলে যেকোনো দিন ঘুরে আসতে পারেন শিবানী পীঠ থেকে|

আজ শেষ করলাম তবে আবার ফিরবো আর জ্যোতিষ সংক্রান্ত কাজে আমাকে সর্বদা পাবেন আমাদের পাশে, চেম্বারে ও অনলাইনে, শুধু ফোন করতে হবে উল্লেখিত নাম্বারে|ভালো থাকুন|ধন্যবাদ|