শিব পুরান – শিব সম্পর্কে কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

443

শিব সংক্রান্ত কিছু অজানা কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য আজকের পর্বে আপনাদের জানাবো|এই তথ্য গুলি শিব পুরান সহ একাধিক শাস্ত্রে নানা ভাবে উল্লেখিত হয়েছে|শিবলিঙ্গে জল ঢালার পর যে গোল চাকতির উপর দিয়ে জল বেরিয়ে যায় সেটি আসলে পার্বতীর পিঠ। পুরাণ অনুযায়ী, জ্ঞাণের বিকাশ হয় শক্তির পিঠের উপর। আর শক্তির উত্‍স আসলে পার্বতী-দুর্গা বা নারী। নারী শক্তির উপর ভিত্তি করেই জ্ঞান বিকশিত হয়।তাই শক্তির আধার ওই স্থান যার উপর বিরাজ করেন অনন্ত শক্তির উৎস মহাদেব|শিব লিঙ্গের স্বরূপ নিয়েও অনেক ভুল ভ্রান্তি আছে, লিঙ্গে জল ঢেলে এসেছেন মানে অনেকে ভাবেন শিবের মাথায় জল ঢেলে এসেছেন। আসলে তা ঠিক নয়। ‘লিঙ্গ’ শব্দের অর্থ হল ‘বাস’ মানে, বাসস্থান। অর্থাত্‍ শিবঠাকুর যেখানে বাস করেন বা বিরাজ করেন, সেটাই আসলে ‘শিবলিঙ্গ’! ত্রিদেবের অন্যতম মহেশ্বর শুধু সংহার কর্তা নয় আসলে শিব ঠাকুর, জ্ঞাণের দেবতা। সরস্বতীকে পুজো করলে বিদ্যা-বুদ্ধি পাবেন। কিন্তু জ্ঞাণী হতে গেলে আপনাকে শিবের উপাসক হতে হবে। শিবের মতো স্বামীর প্রার্থনা করলেন মানে আপনি আসলে নিজের জন্য জ্ঞাণী স্বামী চাইছেন।নৃত্য শিল্পের সঙ্গে শিবের গভীর সম্পর্ক রয়েছে|কথিত আছে নৃত্য ও সঙ্গীত শিবের সৃষ্টি, তিনিই এই নৃত্যকলার প্রবর্তক| শিবের সব থেকে প্ৰিয় দুটি নৃত্যের নাম হল তাণ্ডব ও লাস্য| তাণ্ডব ধ্বংসাত্মক এবং পুরুষালি নৃত্য ও  লাস্য হলো তাণ্ডবের নারীসুলভ বিকল্প যার মধ্যে লুকিয়ে আছে সৃষ্টির আনন্দ| তাণ্ডব ও লাস্য নৃত্য যথাক্রমে ধ্বংস ও সৃষ্টির প্রতীকভবিষ্য পুরানে বলা হচ্ছে যে নাগেরাই প্রথম শিব পূজা শুরু করে এবং নাগ রাজা হিসেবে বাসুকি শিবের তপস্যা করেন ও শিব কে তুষ্ট করে বরদান পান যে তিনি শিবের কণ্ঠে স্থান পাবেন|শিব পুজোয় বেলপাতা অপরিহার্য কারনবেলপাতা মহাদেবের অত্যন্ত পছন্দের।হিন্দু ধর্ম অনুযায়ী বেল পাতা অত্যন্ত শুভ বলে মনে করা হয়। পবিত্র এই পাতা মহাদেবের শ্রীচরণে উত্‍সর্গ করা হয়। বেল পাতাকে দেবাদিদেবের ত্রিনয়নের মতো দেখতে বলেই বেল পাতা দিয়ে মহাদেবের পুজোর রীতি প্রচলিত।এছাড়াও বেলপাতা বিষ ক্রিয়া কমাতে সক্ষম বলে মনে করা হয় তাই যেহেটু সমুদ্র মন্থন থেকে উঠে আসা বিষ পান করেছিলেন মহাদেবে তাই তার উদ্দেশ্যে বেলপাতা অর্পনের রীতি বলে মনে করা হয়|শিবপূজায় কেতকী, চাঁপার ন্যায় কিছু রঙিন ফুল অর্পণ করা নিষিদ্ধ|কারন কেতকী আদি শিব লিঙ্গ অনুসন্ধানকালে ব্রম্ম্হার হয়ে মিথ্যে সাক্ষী দিয়ে ছিলো|চাঁপা ফুল একদা মহাদেবের প্ৰিয় হলেও নারদ একবার চাঁপা ফুল কে ক্রোধ বসত অভিশাপ দিয়ে ছিলেন যে চাঁপা ফুল আর শিব পুজোয় ব্যবহার হবে না|সেই থেকে শিব পুজোয় ব্রাত্য থাকে চাঁপা ফুল|পুরান ও আরো অনেক আধ্যাত্মিক বিষয় নিয়ে ধারাবাহিক আলোচনা চলতে থাকবে|ফিরে আসবো পরের পর্বে|পড়তে থাকুন|যেকোনো জ্যোতিষ সংক্রান্ত সমস্যা নিয়ে আসতে পারেন চেম্বারে অথবা ফোন করতে পারেন উল্লেখিত নাম্বারে|ভালো থাকুন|ধন্যবাদ|