শিব ও রুদ্রাক্ষ

19

আপনারা জানেন শ্রাবন মাস দেবাদিদেব মহাদেবের মাস|পবিত্র এই শ্রাবন মাসে তাই রুদ্রাক্ষ ধারন করা শুভ আবার বাস্তু দোষ দুর করতে রুদ্রাক্ষ ব্যবহার হয় এমনকি শিব লিঙ্গে রুদ্রাক্ষ নিবেদন করে বিশেষ ফল লাভ করতে পারেন |কিন্তু কেনো রুদ্রাক্ষ এতো পবিত্র ও এতো ক্ষমতাশালী আর শিবের সাথে তার সম্পর্ক কি? উত্তর রয়েছে আমাদের পুরানে|রুদ্র শব্দের অর্থ হলো শিব, অক্ষ অর্থ চোখ বা চক্ষুজল।শিবের অশ্রু থেকে রুদ্রাক্ষের উদ্ভব হয়েছিল।শিব পুরাণে রুদ্রাক্ষের জন্মকথার উল্লেখ আছে|পৌরাণিক কাহিনী অনুসারে ভয়ংকর অসুর ত্রিপুরকে বধ করতে গিয়ে শিব দীর্ঘকাল অপলক চোখে যুদ্ধ করার কারণে তার ক্লান্ত ও পরিশ্রান্ত চোখ থেকে মাটিতে গড়িয়ে পড়ে এক ফোঁটা অশ্রু। সৃষ্টিকর্তা ব্রহ্মা সেই অশ্রুজলকে বৃক্ষে পরিণত হওয়ার আদেশ দেন। এরপর এই গাছটি বড় হলে তার ফল ও ফুল হতে শুরু করে। সেই ফলই রুদ্রাক্ষ নামে পরিচিত।রুদ্রাক্ষ শিবের চোখের প্রতিরূপ।শিবের অত্যন্ত প্রিয় বস্তু।তার মধ্যে বহু প্রকার শক্তি একিভুত থাকে।প্রতিটি রুদ্রাক্ষের মধ্যে শিবের উপস্থিত রয়েছে বলে মনে করা হয়। অবশ্য শিবের সঙ্গে সঙ্গে অন্য দেবগণেরও প্রভাব থাকে। গ্রহ গত ভাবে এক একটি রুদ্রাক্ষ একএকটি গ্রহের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত|যেমন একমুখী হলো সূর্যের আবার দুই মুখী হলো চন্দ্রের|তাছাড়া হর গৌরী ও গণেশ রুদ্রাক্ষ বিশেষ ভাবে পরিচিত এবং জ্যোতিষ শাস্ত্রে প্রতিকার রূপে রুদ্রাক্ষ বহু কাল ধরে ব্যবহার হয়ে আসছে|জ্যোতিষ পরামর্শ নিয়ে রাশি লগ্ন সাপেক্ষে ও রুদ্রাক্ষ ব্যাবহার করা যায়|কথিত আছে যে রুদ্রাক্ষ পরলে মানুষের সমস্ত রোগ, দুঃখ ও ভয় দূর হয়। শুধু তাই নয়, একজন ব্যক্তি জীবনে সুখ, সমৃদ্ধি ও সৌভাগ্য লাভ করেন।জ্যোতিষ শাস্ত্রে বিশ্বাস করা হয় যে ভগবান শিবের অশ্রু থেকে তৈরি একটি রুদ্রাক্ষও একজন ব্যক্তির দুর্ভাগ্যকে সৌভাগ্যে রূপান্তরিত করার ক্ষমতা রাখে তবে রুদ্রাক্ষ পরার কিছু নিয়ম মেনে চলতে হবে।রুদ্রাক্ষ কব্জি, গলা ও জপমালা হিসাবে পরা যেতে পারে। এটা কন্ঠে ধারণ করা সবচেয়ে ভালো।কব্জিতে ১২ টি, গলায় ৩৬ টি এবং জপমালায় মোট ১০৮ টি রুদ্রাক্ষের দানা পরতে হবে আবার একটি রুদ্রাক্ষও ধারণ করতে পারেন। কিন্তু এই দানা বুক যাতে স্পর্শ করে সেদিকে নজর দিতে হবে এবং লাল সুতোয় বাধা থাকবে হবে।বাস্তু তে প্রধান দরজায় রুদ্রাক্ষ স্থাপন করে বাস্তু দোষ থেকে ও অশুভ শক্তি থেকে মুক্তি পাওয়া যায়|রুদ্রাক্ষ পরার আগে গঙ্গাজল দিয়ে শুদ্ধ করে এটি ভগবান শিবকে উৎসর্গ করতে হবে ও মহামৃত্যুঞ্জয় অথবা শিব স্তোত্র জপ করতে হবে।শ্রাবণের সোমবার এবং শিবরাত্রিতে রুদ্রাক্ষ পরা উত্তম। যাঁরা রুদ্রাক্ষ পরিধান করেন, তাঁদের সাত্ত্বিক থাকতে হবে এবং আচার-আচরণ শুদ্ধ রাখতে হবে, তা রুদ্রাক্ষের সঠিক ফল পাওয়া যাবে|আগামী পর্বে শিব সংক্রান্ত অন্য কোনো বিষয় ও শাস্ত্রীয় ব্যাখ্যা নিয়ে আবার ফিরে আসবো|পড়তে থাকুন|ভালো থাকুন|ধন্যবাদ|