শিব রাত্রির আধ্যাত্মিক তাৎপর্য

163

সাধারণত ফেব্রুয়ারি বা মার্চ মাসে শিবরাত্রির তিথি পড়ে। এই বছর ১ মার্চ, মঙ্গলবার পড়েছে মহাশিবরাত্রির তিথি। ২৮ ফেব্রুয়ারি রাত ২.২৩ মিনিট থেকে ১ মার্চ রাত ১২.৩৯ মিনিট পর্যন্ত থাকবে শিব চতুর্দশীর তিথি। শিবরাত্রি’ কথাটা দুটি শব্দ থেকে এসেছে। ‘শিব’ ও ‘রাত্রি’, যার অর্থ শিবের জন্য রাত্রী। শিবরাত্রির সঙ্গে প্রচলিত আছে নানা কথা। পুরাণ মতে দেবী পার্বতীর সঙ্গে এদিন দেবাদিদেব মহাদেবের মিলন হয়।শিব রাত্রির এই তিথিতেই প্রকট হয়েছিলো আদি শিব লিঙ্গ।  যজ্ঞের মধ্যে যেমন অশ্বমেধ যজ্ঞ, তীর্থের মধ্যে যেমন গঙ্গা তেমনই পুরাণ অনুযায়ী ব্রতের মধ্যে শ্রেষ্ঠ হল শিব চতুর্দশীর ব্রত। তাই শিবরাত্রির ব্রত পালন করলে ধর্ম, অর্থ, কাম, মোক্ষ- এই চতুর্বিধ ফল লাভ হয়।  দেবাদিদেব মহাদেবের আরাধনা করার সর্বশ্রেষ্ঠ দিন মহা শিবরাত্রি এদিন ভক্তি মনে পুজো করলে বাবা ভোলেনাথের ভক্তদের মনবাঞ্ছা পূরণ হয়। মাঘ মাসের কৃষ্ণপক্ষের চতুর্দশী তিথিতে শিবরাত্রি পালন করা হয়। শিব রাত্রির পরদিন 2 মার্চ থাকছে অমাবস্যা ওই তিথিতে আমি থাকছি তারাপীঠে|হবে হোম যজ্ঞ ও গ্রহ দোষ খণ্ডন|এখন থেকেই আপনারা যোগাযোগ করতে পারেন যেকোনো গ্রহ গত সমস্যা নিয়ে|এই তিথিতে গ্রহ দোষ খন্ডনের সুযোগ বার বার আসেনা|সবাইকে শিব রাত্রির আগাম শুভেচ্ছা|ভালো থাকুন|হর হর মহাদেব|