শ্রাবন মাসে শিবলিঙ্গে দুধ কেনো দেবেন

169

চলছে শ্রাবন মাস। আর কিছুদিন পরেই শিবরাত্রিতে মহিলারা শিবপূজা করবেন এবং শিবের মাথায় জল এবং দুধ অর্পণ করেন ।ঠিক কেনো শিবের মাথায় দুধ ঢালা হয় তার পৌরাণিক এবং সমাজতাত্ত্বিক কারন আছে।আসুন জেনে নিই।পৌরাণিক কালে দেবতা ও অসুরেরা মন্দার পর্বতের সাহায্যে সমুদ্র মন্থন করেন। এই সময় সমুদ্র থেকে উঠে আসে প্রচুর ধনরত্ন। কিন্তু তার সাথে প্রচুর পরিমানে গরলও উঠে আসে, যা পরিবেশের পক্ষে ক্ষতিকর ছিল। কোন দেবতা যখন সেই গরলের ভাগ নিতে নারাজ ছিলেন, সেই সময় মহাদেব তাঁর কণ্ঠে সমস্ত বিষ ধারণ করে নেন। এবং পরিবেশকে বিষের প্রকোপ থেকে রক্ষা করেন। এই ঘটনার পর তাঁর সারা শরীরের তাপমাত্রা কয়েকগুণ বেড়ে গিয়েছিল। মহাদেবকে বিষের জ্বালা থেকে বাঁচাতে দেবী তারা প্রকট হয়ে শিবকে স্তন্য পান করান। সেই কারণেই এখনও শিবের বিষের জ্বালা কমাতে তাঁকে দুধ দিয়ে স্নান করানো হয়।আয়ুর্বেদ অনুসারে বৈজ্ঞানিকরা মনে করেন, বর্ষাকালে ঘাস খাওয়ার সময় গোরু ঘাসের সাথে বিভিন্ন রকমের ব্যাক্টেরিয়া খেয়ে ফেলে। যার ফলে দুধে বিষক্রিয়া থাকার সম্ভাবনা থাকতে পারে। তাই বর্ষাকালের দুধ পান না করে শিবলিঙ্গে ঢালা হয়।শিব যেহেতু সমুদ্র মন্থনের সময় উৎপন্ন গরল নিজের কন্ঠে পান করে ছিলেন তাই তিনি বিষের প্রভাব থেকে মুক্ত।আসলে আরাধ্য দেবাদিদেবকে যা অর্পণ করা হবে তা আমাদের জীবনেই আশীর্বাদ নিয়ে আসবে তাই যারা প্রার্থনা করেন আমার সন্তান যেনো থাকে দুধে ভাতে তারা শিব লিঙ্গে দুধ অর্পণ করেন। দুধ এক্ষেত্রে সমৃদ্ধি এবং ঐশর্যর প্রতীক স্বরূপ।ফিরে আসবো আগামী পর্বে। শ্রাবন মাস জুড়ে থাকবে এমনই সব গুরুত্বপূর্ণ আধ্যাত্মিক বিষয় নিয়ে আলোচনা। পড়তে থাকুন।ভালো থাকুন।ধন্যবাদ।