দেবী মাহাত্ম – কাঠের কালী মূর্তি

149

বীরভূমের ঐতিহ্যবাহী কালীপুজোগুলির মধ্যে অন্যতম সাঁইথিয়ার কাঠের কালীপুজো এই ব্যাতিক্রমী কাঠের কালী প্রতিমা নিয়ে লিখবো আজকের পর্বে।এই পূজোর বিশেষত্ব হলো এখানকার কালী প্রতিমা দারু অর্থাৎ কাঠের তৈরী । দীপান্বিতা অমাবস্যায় পুজোর পর সারাবছর প্রতিমা মন্দিরেই থাকে। পুজোর দুদিন আগে সেই দারু মূর্তি বিসর্জন করা হয় মন্দিরের পিছনে থাকা কালী গড়েতে।আবার নতুন কাঠের মূর্তি তৈরী হয় নিয়ম করে যথা সময়ে।এখানে মায়ের মূর্তি বলতে শুধু গলা থেকে মুখটুকু। ৩ খণ্ড নিমকাঠ দিয়ে বংশ পরম্পরায় যা তৈরি করেন সাঁইথিয়ার পাথাই গ্রামের সূত্রধর বংশ।আরো একটি অদ্ভুত ও অলৌকিক বিষয় হলো বিসর্জনের সময় এই দারু মূর্তি শিকল দিয়ে বেঁধে বিসর্জন করার রীতি । শিকল দিয়ে বেঁধে দারু মূর্তি বিসর্জন করা করা হয় যাতে সেই মূর্তি কোথাও পালিয়ে না যায় তার জন্য।বেঁধে রাখার পেছনে আসলে অসংখ্য ভক্তদের শ্রদ্ধা ও মায়ের প্রতি টান আসল কারন।শোনা যায় একসময় মাকে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখতে হত মন্দিরে। এমনকী বিসর্জনের পর যাতে গ্রাম ছেড়ে মা চলে না যান, তার জন্য দিন-রাত পুকুর পাড়ে পাহারা দেন ভক্তরা।অদ্ভুত এই রীতি আজও পালন হয়।প্রতিবছর দীপান্বিতা অমাবস্যায় ধুমধামে এখানে কালীপূজো করা হয়ে থাকে।দূর দূর থেকে জাতি ধর্ম নির্বিশেষে বহু মানুষ আসেন।দেবী মাহাত্ম নিয়ে ফিরে আসবো পরের পর্বে।পাশাপাশি চলবে মন্দির রহস্য নিয়ে আলোচনা।পড়তে থাকুন।ভালো থাকুন। ধন্যবাদ।