কালীকা পুরান – নরকাসুরের কথা

40

নরকাসুরের কিংবদন্তি কামরূপ রাজ্যের ইতিহাসে বেশ গুরুত্বপূর্ণ কারন কামরূপ শাসন করা কয়েকটি রাজবংশ নরকাসুর থেকেই সৃষ্টি হয়েছে বলে মানা হয়। গুয়াহাটীর দক্ষিণে তার নামে একটি পাহাড়ও আছে। দেবী কামাখ্যা এবং তন্ত্র সাধনার পীঠ স্থান কামাখ্যার সাথে ওতপ্রোত ভাবে জড়িত নরকাসুর যার সম্পর্কে অনেক তথ্য আছে আসাম রাজ্যে রচিত কালীকা পুরানে|আজ আপনাদের জন্য লিখবো নরকাসুর নিয়ে|রামায়ণ এবং মহাভারতেও নরকাসুরের সৃষ্টি প্রাগজ্যোতিষ রাজ্যের উল্লেখ আছে। তার পুত্র ভগদত্ত‌ মহাভারতের যুদ্ধে কৌরবদের হয়ে অংশগ্রহণ করেছিলেন|নরকের মাতা ভূমি দেবী বিষ্ণুর কাছে বর চেয়েছিলেন যেন তার পুত্র দীর্ঘ জীবন লাভ করে এবং সে শক্তিশালী হয়। বিষ্ণু এই বর পূরণ করেন। সঙ্গে বিষ্ণু নরকাসুরকে কামাখ্যা দেবীর পূজা করতে শেখান। প্রথম অবস্থায় ভাল ভাবে শাসন করা নরকাসুর পরে অত্যাচারী হয়ে ওঠে।নরকাসুর কামাখ্যা দেবীকে বিয়ে করার প্রস্তাব দেন। দেবীকে বলাতে দেবী শর্ত রাখেন যে একরাতে যদি নরকাসুর নীলাচল পাহাড়ের তলা থেকে মন্দির পর্যন্ত সিঁড়ি নির্মাণ করতে পারেন তবে তিনি বিয়ে করতে রাজী হবেন। নরকাসুর সেইমত সিড়ি নির্মাণ করে রাত পেরোনোর আগে শেষ করার উপক্রম করলেন। কামাখ্যা দেবী তখন একটি মোরগকে আদেশ দিলে সে ডাক দেয়। নরকও রাত পেরোলো এই ভেবে কাজঅসম্পূর্ণ রাখলেন এবং ফল স্বরূপ দেবী তাকে স্বামী রূপে প্রত্যাখ্যান করলেন|পুরানে আরো একটি ঘটনার উল্লেখ আছে যেখানে বশিষ্ঠ মুনিকে কামাখ্যা মন্দিরে উপাসনা বাঁধা পেয়ে তিনি নরকাসুর এবং দেবীকে অভিশাপ দেন যে এই মন্দিরে পূজা করা কারো মনোবাঞ্ছা পূর্ণ হবে না।পরবর্তীতে শিবের হস্তক্ষেপে এই অভিশাপ সেই বছর পর্যন্ত সীমিত হয়। অন্যদিকে নরকাসুর বিষ্ণু এবং কামাখ্যার অপ্রিয়ভাজন হয়ে ওঠেন।পৃথিবীর সকল রাজ্য জয় করার পর নরকাসুর স্বর্গ আক্রমণ করেন এবং ইন্দ্র পালাতে বাধ্য হন। স্বর্গর অপ্সরাদের অপহরণ করে নিয়ে যান। পরবর্তীতে কৃষ্ণর ভার্যা সত্যভামাকে অদিতি নরকাসুরের কুকীর্তি বলে। সত্যভামা কৃষ্ণকে নরকাসুরের বিপক্ষে যুদ্ধের জন্য রাজি করান। কৃষ্ণ এবং সত্যভামা গরুড়ে উঠে নরকাসুরের রাজ্য আক্রমণ করেন। প্রথমে কৃষ্ণ‌ নরকাসুরের সেনাপতি মুর কে বধ এবং অবশেষে সুদর্শন চক্র দ্বারা কৃষ্ণ‌ নরকাসুরকে বধ করেন|নরকাসুর ও কৃষ্ণর এই যুদ্ধ এবং আরো অনেকপৌরাণিক তথ্য লিপিবদ্ধ আছে কালীকা পুরানে|পরবর্তী পর্বগুলিতে থাকবে আরো অনেক পৌরাণিক বিষয় নিয়ে আলোচনা|পড়তে থাকুন|ভালো থাকুন|ধন্যবাদ|