মন্দির রহস্য – গ্রহরাজ শনিদেবের অদ্ভুত কিছু মন্দির

52

আজ শনিবার |আজ মন্দির রহস্য পর্বে গ্রহ রাজ শনিদেবের চারটি মন্দিরের কথা বলবো যেগুলি ঐতিহাসিক বা পৌরাণিক ভাবে গুরুত্বপূর্ণ হওয়ার পাশাপাশি জ্যোতিষ শাস্ত্রের দিক দিয়েও গুরুত্বপূর্ণ|প্রথম মন্দিরটি তামিলনাড়ু তাঞ্জাভুর জেলায় এই মন্দির অবস্থিত। দুই নদীর মাঝখানে অবস্থিত এই মন্দির। এখানে শনিদেবের বিশেষ মহিমা রয়েছে । প্রচলিত বিশ্বাস অনুযায়ী, এখানে পুজো করলে ব্যক্তি স্বয়ং নিজের রাশি পরিবর্তন করতে পারে। এই মন্দিরে শনির পাশাপাশি শিবের পুজোও করা হয়। এখানে শিব ও শনি এক সঙ্গে নিজের ভক্তদের কল্যাণ করেন।দ্বিতীয় মন্দিরটি মথুরার কোসি কলায় অবস্থিত একটি প্রসিদ্ধ শনি মন্দির যারা চারদিকে জঙ্গল দিয়ে ঘেরা এই মন্দির সম্পর্কে প্রচলিত বিশ্বাস যে, এখানে সাতটি শনিবার সরষের তেল অর্পণ করলে শনি দোষ দূর হয়। উল্লেখ্য, এটি শনির পাশাপাশি গুরু বরখন্ডী বাবারও মন্দির। মনে করা হয় কৃষ্ণ এই স্থানেই কোকিল রূপে শনিকে দর্শন দিয়েছিলেন।পবিত্র এই স্থানে গ্রহ রাজ শনির সঙ্গে শ্রীমতী রাধারানী ও কৃষ্ণের পুজো করা হয়।তৃতীয় মন্দিরটি ছতরপুরে অবস্থিত|এটিও বিখ্যাত একটি পর্যটনস্থল। এখানে শনিদেবের মূর্তি প্রাকৃতিক এবং বিশ্বে শনির সবচেয়ে উঁচু মূর্তি এখানেই আছে । প্রচলিত ধারণা অনুযায়ী এখানে শনিবার পূজার্চনা করলে শনি প্রদত্ত সব দুখঃ কষ্ট দূর হয়।মন্দিরে কাকের ওপর বিরাজমান শনিদেবের মূর্তি রয়েছে।সারা দেশে বিশেষ করে বাংলায় রহস্যময় মন্দিরের সংখ্যা প্রচুর|ফিরে আসবো অন্য কোনো মন্দির রহস্য নিয়ে|পড়তে থাকুন|ভালো থাকুন|ধন্যবাদ|