নবদূর্গার নবম রূপ – দেবী সিদ্ধিদাত্রী

46

নবদুর্গার নবম তথা শেষ রূপ হল সিদ্ধিদাত্রী। সিংহবাহিনী দেবীর চার হাতে আশীর্বাদী মুদ্রা। তিনি সিদ্ধি দান করেন। সবাইকে বরাভয় দেন এই মাতৃকামূর্তি ।যদিও বিভিন্ন পুরাণে দেবীর ভিন্ন রূপ বর্ণিত, কোথাও তিনি অষ্টভুজা, তো কোথাও তিনি অষ্টাদশভুজা আবার কোথাও দেবী ‘সিদ্ধিদাত্রী’ চতুর্ভুজা রূপেও পূজিত।দেবী সিদ্ধি দান করেন|দেবী ভগবত্‍ পুরাণে আছে, স্বয়ং মহাদেব দেবী পার্বতী কে সিদ্ধিদাত্রী রূপে পুজো করেছিলেন|এবং তার ফলে মহাদেব সকল সিদ্ধি লাভ করেন|দেবীর উপাসনায় সংসারে আসে সুখ এবং সমৃদ্ধি এবং সকল সিদ্ধি লাভ হয়| যারা কর্ম ক্ষেত্রে উন্নতি চায় শিক্ষা ক্ষেত্রে সমস্যা থেকে মুক্তি চায় এবং প্রকৃত জ্ঞান লাভ করতে চায় তারা দেবীর এই রূপের আরাধনা করতে পারেন|দেবী সিদ্ধিদাত্রীর আশীর্বাদ পাওয়ার জন্য,নব রাত্রির এই বিশেষ দিনে আপনারা দেবীর মূর্তিকে গন্ধম, পুষ্পম, দীপম, সুগন্ধম এবং ভোগ নিবেদন করে পঞ্চোপচার পূজা করতে পারেনা । তাছাড়া দেবীর উদ্দেশ্যে আপনারা সিঁদুর, মেহেন্দি, কাজল নিবেদন করতে পারেনা তাতে আপনারা বিবাহিত জীবনে সুখের হবে দেবীর আশীর্বাদে|দেবী সিদ্ধিদাত্রীর পুজোয় এই মন্ত্রটি জপ করতে পারেন -ওম দেবী সিদ্ধিদাত্রায়ায় নমঃ। ওম দেবী সিদ্ধিদাত্রায় নমঃ ॥সিদ্ধ গন্ধর্ব যক্ষ্যাদিরসুরৈরমরপি। সেবামনা সর্বদা ভূয়াত সিদ্ধিদা সিদ্ধিদায়িনী।।সিদ্ধ গন্ধর্ব যক্ষদ্যারসুররমররাপি। সেবামনা সদা ভূয়াত সিদ্ধিদা সিদ্ধিদায়িনী ॥বা দেবী সর্বভূতেষু মা সিদ্ধিদাত্রী রূপেন সংস্থা। নমস্তস্য নমস্তস্য নমস্তস্য নমো নমঃ ॥ইয়া দেবী সর্বভূতেষু মা সিদ্ধিদাত্রী রূপেনা সংস্থিতা। নমস্তস্যায় নমস্তস্যৈ নমস্তস্যৈ নমো নমঃ ॥পদ্মাসনে বসা দেবীকে তিলের তৈরি নাড়ু বা খাবার ভোগ হিসেবে দেওয়ার চল রয়েছে। মনে করা হয়, তাতে ভক্তের শারীরিক ও মানসিক পীড়া দুর হয়|পরিবারের ও কল্যান হয়|আসন্ন দূর্গা পুজো উপলক্ষে যুক্ত থাকুন হৃদয়েশ্বরী সর্বমঙ্গলা মায়ের মন্দিরের পুজোর সাথে|আবার দেখা হবে পরের পর্বে আধ্যাত্মিক ও পৌরানিক আরো অনেক বিষয় নিয়ে আলোচনা থাকবে প্রতিটি অনুষ্ঠানে|পড়তে থাকুন|ভালো থাকুন|ধন্যবাদ|