দশ মহাবিদ্যা – দেবী ধূমাবতী

40

আগের কয়েকটি পর্বে আপনাদের দশ মহাবিদ্যা রূপের কয়েকটি নিয়ে বলেছি|আজ থেকে আবার বাকি রূপ গুলো নিয়ে আলোচনা করবো|আজকের পর্বে দেবী ধুমাবতী|দশমহাবিদ্যার সপ্তম রূপ দেবী ধূমাবতী। একদিন কৈলাশে পার্বতী প্রচণ্ড ক্ষুধায় কাতর হয়ে বারবার শিবের কাছে অন্ন চান। কিন্তু ঘরে একটা চালও নেই। ক্ষুধার জ্বালায় ক্ষিপ্ত হয়ে শিবকে গ্রাস করে ফেলেন দেবী। সঙ্গে সঙ্গে দেবীর দেহ হতে ধোঁয়া নির্গত হতে থাকে। সেই ধোঁয়া পার্বতীকে বিবর্ণ করে দেয়। ধোঁয়ার আবৃত দেহ থেকে শিব বের হয়ে বলেন, ‘তুমি যখন ক্ষুধায় আমাকে গ্রাস করেছ তখন তুমি বিধবা হয়েছ। এই বিধবা বেশে তুমি ধূমাবতীরূপে পূজিতা হবে। তাই ধূমাবতী বিধবা|ধূমাবতী হলেন সপ্তম মহাবিদ্যা। গুহ্যাতিগুহ্য তন্ত্র গ্রন্থে দশ মহাবিদ্যাকে বিষ্ণুর দশ অবতারের উৎস বলে উল্লেখ করা হয়েছে। এই গ্রন্থ মতে মৎস্য অবতারের উৎস হলেন ধূমাবতী।মুণ্ডমালা গ্রন্থেও ধুমাবতীর উল্লেখ রয়েছে,এই গ্রন্থ মতে বামন অবতারের উৎস হলেন ধূমাবতী|তিনি শিবহীন, ভয়ঙ্করী, রুক্ষ মলিন বসনা, বিবর্ণ কুণ্ডলা, বিরল দন্তা, নিত্য বুবুক্ষিতা, অতিকৃশা, বৃদ্ধা। ধূমাবতীর দুই হাত, একহাতে কুলা ও অন্য হাতে ধর। ইনি রথরূঢ়া। রথের ধ্বজ চারটিতে চারটি কাক।দেবীর মূর্তিতত্ত্ব নিয়েও রয়েছে মতান্তর। ধূমাবতী তন্ত্রে তাঁকে শ্মশানচারিণী এক বৃদ্ধা বিধবারূপে কল্পনা করা হয়েছে, যাঁর এক হাতে একটি কুলো আর অন্য হাতটি বরাভয় প্রদান করছে। দেবী রীতিমত কুৎসিত এবং দীর্ঘাকায়া, রোগগ্রস্থা, পাণ্ডুরবর্ণা এবং মুক্তোকেশী। একইসঙ্গে তাঁর হৃদয় অত্যন্ত কুটিল। দারিদ্র্যের দেবী, তাই শরীরে অলংকার নেই। পরনে জীর্ণ, মলিন বস্ত্র। সবথেকে ভয়ের উদ্রেক করে দেবীর হিংস্র দুই চোখ। অন্যদিকে তাঁর মুখে বেশ কয়েকটি দাঁত নেই, তাই হাসলে ফোকলা দেখায়। দেবী একটি অশ্বহীন রথের ওপর আসীন, এই রথের পতাকায় একটি কাকের ছবি।দেবী ধুমাবতী কে মৃত্যুর দেবীও বলা হয়ে থাকে।ধূমাবতী সিদ্ধি বা অলৌকিক ক্ষমতা প্রদান করেন; তিনি সকল বিপদ থেকে ভক্তকে উদ্ধার করেন এবং জ্ঞান ও মোক্ষফল সহ সকল অভীষ্ট বস্তু প্রদান করেন। জ্যোতিষ শাস্ত্র মতে কেতু সংক্রান্ত দোষ দুর করতে দেবী ধুমাবতীর স্মরণ নেয়া হয়|বারাণসীতে ধূমাবতীর একটি মন্দির রয়েছে। এছাড়া ভারতবর্ষে দেবীর মন্দিরের সংখ্যাখুবই কম। শ্মশান বা জঙ্গলে তন্ত্রমতে দেবী ধূমাবতীর পুজো হয়ে থাকে।ফিরে আসবো দশ মহাবিদ্যার পরের রূপ এবং আরো অনেক আলোচনা সাথে নিয়ে |পড়তে থাকুন|ভালো থাকুন|ধন্যবাদ|