অম্বুবাচি ও জ্যোতিষ শাস্ত্র

34

জ্যোতিষ শাস্ত্র ও গ্রহ গত সংযোগ রয়েছে এই অম্বুবাচী উৎসবের সাথে | আষাঢ় মাসে মৃগশিরা নক্ষত্রের তিনটি পদ শেষ হলে অম্বুবাচী কালের সূচনা হয় হন| এই বিশেষ সময়কাল ধরে প্রতি বছর সনাতন ধর্মাবলম্বীরা অম্বুবাচী পালন করেন।প্রতিবছর আষাঢ় মাসের সাত তারিখ থেকে শুরু হয় অম্বুবাচী|আবার সনাতন জ্যোতিষ শাস্ত্র অনুসারে সূর্য যে বারের যে সময়ে মিথুন রাশিতে গমন করে, তার পরবর্তী সেই বারের সেই সময় থেকে অম্বুবাচী হয়| যে তিন দিন সূর্য আর্দ্রা নক্ষত্রের প্রথম পাদে থাকেন, তা-ই অম্বুবাচী|অর্থাৎ জ্যোতিষশাস্ত্র ওতপ্রোত ভাবে জড়িত এই ধর্মীয় উৎসবের সাথে কারন গ্রহ নাক্ষত্রিক যোগাযোগ দেখে অম্বুবাচী পালন করা হয় সারা দেশ জুড়ে|জ্যোতিষ শাস্ত্র মতে অম্বুবাচি চলাকালীন কয়েকটি বিষয়ে মেনে চলা উচিৎ সেগুলি হলো – অম্বুবাচীতে ভূমিকর্ষণ ও বৃক্ষরোপণ নিষেধ। কারণ এই সময় ধরণী ঋতুমতী হয়।এই সময় মাটি খুঁড়বেন না, গাছ লাগাবেন না, এই সময়ে গৃহপ্রবেশ, বিবাহ ও অন্যান্য শুভ কাজ করা নিষিদ্ধ। এই সব কাজ করলে তা অশুভ হবে বলে মনে করা হয়।এই সময়ে কোনও বিশেষ পূজা রাখবেন না। তবে কোনও বছর যদি এই সময় জগন্নাথদেবের রথযাত্রা পড়ে, তবে তা নির্দিষ্ট নিয়ম মেনেই হতে পারে। কেননা এই সময়ে নিত্যকর্ম হবে, কাম্য কর্ম হবে না। রথযাত্রা নিত্যকর্ম। যারা আদি শক্তির বিভিন্ন রূপ, যথা কালী, দুর্গা, জগদ্ধাত্রী, বিপত্তারিণী, শীতলা, চণ্ডীর মূর্তি বা পট পূজা করেন, তাঁরা মূর্তি বা পট লাল কাপড়ে ঢেকে রাখবেন। পূজার সময় কোনও মন্ত্র পাঠ করবেন না, কেবল ধূপ-দীপ দেখিয়ে প্রণাম করলেই হবে।অম্বুবাচীতে ভুলেও মূর্তি বা পট স্পর্শ করবেন না। অম্বুবাচীর নিবৃত্তির পর আচ্ছাদন খুলে আসন ধুয়ে দেবীকে স্নান করিয়ে পূর্বের মতো পূজা ও আম-দুধ নিবেদন করবেন।তুলসি গাছের গোড়া এই সময় মাটি দিয়ে উঁচু করবেন। যাঁরা শাক্তমন্ত্রে দীক্ষিত, তাঁরা জপ করতে পারবেন। কারণ জপে কোনও দোষ নেই।অম্বুবাচীতে গুরুপূজা চলবে। গুরু যদি নারী হন, অর্থাৎ গুরুমা হন, তা হলেও পূজা চলবে। অম্বুবাচীতে গুরু প্রদত্ত নিজ ইষ্টমন্ত্র যত বেশি সম্ভব জপ করুন।অম্বুবাচীতে বিধিপূর্বক অগ্নিস্থাপন করে নিজ ইষ্ট মন্ত্রে হোম করুন ও নিজের মনোস্কামনা ব্যাক্ত করুন সর্পভয় নিবারণের জন্য আম ও দুধ সেবন করুন। কথিত আছে এই সময়ে আম ও দুধ খেলে এক বছর সাপের ভয় থাকে না তাই এই নিয়ম মেনে চলতে পারেন।যারা গ্রহগত কোনো সমস্যার শাস্ত্র সম্মত প্রতিকার চান অথবা জ্যোতিষ পরামর্শ প্রয়োজয় তারা উল্লেক্ষিত নাম্বারে সরাসরি যোগাযোগ করতে পারেন|ভালো থাকুন|ধন্যবাদ|