মন্দির রহস্য : কলকাতার বৌদ্ধ মন্দির

477

কলকাতায় কালী মন্দির, শিব মন্দির, দূর্গা মন্দির রয়েছে অসংখ্য যার কয়েকটির কথা আপনাদের ইতিমধ্যে বলেছি|আজ একটি বৌদ্ধ মন্দিরের কথা বলবো যা স্বাধীনতার আগে থেকেই রয়েছে এই কলকাতায়, অসংখ্য বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বী মানুষের আস্থার স্থান এই মন্দির রয়েছে দক্ষিণ কলকাতায়|নিপ্পনজান মায়োহোজি নামের জাপানি বুদ্ধ মন্দিরটি দক্ষিণ কলকাতার লেক রোডে অবস্থিত| এই মন্দিরটি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৩১ সালে। এটি স্থাপিত হয়েছে বৌদ্ধধর্মের নিপ্পনজান মায়োহোজি বা নিপ্পনজান-মায়োহাজি-ডাইসাঙ্গা বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের বিশ্বাস অনুসরণে। বৌদ্ধধর্মের এই ভাগটি চালু হয় ১৯১৭ সালে।মন্দির প্রতিষ্ঠার ইতিহাস অনেকটা এই রকম ১৯৩১ সালে নিচিদাৎসু নামে এক বৌদ্ধ সন্ন্যাসী কলকাতায় আসেন নিপ্পনজান-মায়োহাজি-ডাইসাঙ্গা ভাবধারা প্রচার করতে শুরু করেন। মন্দিরের প্রতিষ্ঠা হয় ১৯৩৫ সালে।মন্দিরে ঢুকলেই এক অদ্ভুত প্রশান্তি অনুভব করা যায়, ফুলের বাগান, ঘন্টা ধ্বনি, বৌদ্ধ মন্ত্র, প্রার্থনা কক্ষের বিশাল বেদীতে বিরাজমান শ্বেত পাথরের বুদ্ধ,সব মিলিয়ে মনে হবে যেনো কোনো সুদূরে বৌদ্ধ গুম্ফায় এসে পড়েছেন|পূর্ণিমার রাতে মন্দিরের সৌন্দর্য যেন আরও উজ্জ্বল হয়ে ওঠে|ঠাকুর বলতেন যত মত ততো পথ, এই সত্য উপলব্ধি করতে ও বুদ্ধের স্মরণে যেতে একবার ঘুরে আসতেই পারেন এই বৌদ্ধ মন্দিরে|ভালো থাকুন পড়তে থাকুন|প্রয়োজন পোস্টে উল্লেখিত নাম্বারে ফোন করুন|ধন্যবাদ|