বাংলার কালী- কৃপাময়ী কালী মন্দির

202

পন্ডিতজি ভৃগুশ্রী জাতক

আজকের পর্বে আপনাদের এক ঐতিহাসিক কালী মন্দিরের কথা বলবো, মুর্শিদাবাদের কাসিম বাজারে রয়েছে এই কালী মন্দির যা কৃপাময়ী কালী মন্দির নামেই প্রসিদ্ধ, এই মন্দিরের সাথে জড়িয়ে আছে স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাস, রয়েছে বাংলার ডাকাতদের গল্প|

কাসিম বাজারের রাজা রাজা মণিন্দ্র চন্দ্র উদ্যোগী হয়ে এই আজকের এই মন্দির তৈরি করেন প্রায় দুশো বছর আগে|এককালে স্বাধীনতা সংগ্রামীরা এই মন্দিরে গোপন আস্তানা তৈরি করেছিলেন। শোনা যায় নেতাজিও এখানে আসতেন এখানে|শোনা যায় এই মন্দির হয়ে ওঠে স্বাধীনতা আন্দোলনকারীদের গোপন ডেরা। আর মন্দিরে অন্য কেউ না এলেও পুরোহিতরা রোজ আসতেন। কিন্তু তাঁরা স্বাধীনতা সংগ্রামীদের পূর্ণ সহযোগিতা করতেন এখানে লুকিয়ে থাকতে|

এক সময় এই এলাকা ডাকাতদের জন্যে কুখ্যাত ছিলো, কথিত আছে একবার মন্দিরে ডাকাতি করে পালানোর সময় হঠাৎ কাঁসার বাসন পড়ে যায়। সেই সময় অলৌকিক ভাবে সেবাইত পরিবারের এক সদস্যও স্বপ্নাদেশে জানতে পারেন মন্দিরে ডাকাতি হচ্ছে তিনি ছুটে আসেন তিনি গুলি করে এক ডাকাতকে মেরে ফেলেন। ডাকাতরা নাকি মূর্তির গা থেকে গয়না খোলার সময় মায়ের একটি পা ভেঙে ফেলে। পরে বারাণসী থেকে আবার কষ্ঠিপাথর নতুন মুর্তি
নিয়ে আসা হয়।

মুর্শিদাবাদের অত্যন্ত জাগ্রত দেবী আনন্দময়ী করুণাময়ী ও কৃপাময়ী তার দুই বোন|আজও প্রতিটি বিশেষ তিথীতে অসংখ্য মানুষ আসেন কৃপাময়ী কালী মন্দিরের|কথিত আছে দেবী কাউকে খালি হাতে ফেরান না|আজ এখানে শেষ করলাম,ভালো থাকুন জ্যোতিষ ও তন্ত্র সংক্রান্ত প্রয়োজনে যোগাযোগ করুন উল্লেখিত নম্বরে এবং যুক্ত হন মা হৃদয়েশ্বরী সর্বমঙ্গলা মন্দিরের সাথে|ভালো থাকুন|ধন্যবাদ|